Hit enter after type your search item

A Complete Guide for BD Job Preparation

বাংলা ব্যাকরণ । Best & 1st Class Note for Job & Admission

/
/
712 Views

ব্যাকরণ

গ্রিক শব্দ ‘Grammar’ এর বাংলা প্রতিশব্দ ব্যাকরণ, যার অর্থ হলো-‘শব্দশাস্ত্র’। ‘ব্যাকরণ’ শব্দটি বিশ্লেষণ করলে দাঁড়ায় বি+আ+কৃ+অন এবং ব্যাকরণ শব্দটির ব্যুৎপত্তিগত অর্থ হচ্ছে-বিশেষভাবে বিশ্লেষণ।

ডক্টর সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়ের মতে, “যে বিদ্যার দ্বারা কোনো ভাষাকে বিশ্লেষণ করিয়া তাহার স্বরূপটি আলোচিত হয় এবং সেই ভাষার গঠনে ও লিখনে এবং তাহাতে কথোপকথনে শুদ্ধ-রূপে তাহার প্রয়োগ করা যায়, সেই বিদ্যাকে সেই ভাষার ব্যাকরণ বলে।”

ডক্টর সুকুমার সেনের মতে, “যে বইয়ে ভাষার বিচার ও বিশ্লেষণ আছে, তা-ই ব্যাকরণ।”

ব্যাকরণ ভাষার অনুগামী এবং ভাষাকে বর্ণনা করে। ব্যাকরণকে ভাষার সংবিধান বলা হয়।

ভাষার বিশ্লেষণ এবং ভাষার অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলা আবিস্কার করাই ব্যাকরণের প্রধান কাজ। ব্যাকরণে ভাষার স্বরুপ ও প্রকৃতি নিয়ে আলোচনা করা হয়।

বাংলা ব্যাকরণ

ব্যাকরণের প্রকারভেদ

ডক্টর সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায় ব্যাকরণকে ৪ ভাগে ভাগ করেছেন। যথা-

(১) বর্ণানাত্নক ব্যাকরণ

(২) ঐতিহাসিক ব্যাকরণ

(৩) তুলনামূলক ব্যাকরণ এবং

(৪) দার্শনিক-বিচারমূলক ব্যাকরণ।

ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তা

ব্যাকরণ ভাষাকে নিয়ন্ত্রণ করে না, তবে ভাষার শুদ্ধ প্রয়োগের ক্ষেত্রে ব্যাকরণ পাঠের প্রয়োজনীয়তাকে অস্বীকার করা যায় না। নিন্মে ব্যাকরণে প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে আলোচনা করা হলো-

১. ব্যাকরণ ভাষাকে বিশ্লেষণ করে এবং ভাষার স্বরূপ ও বৈশিষ্ট্যকে নিরূপণ করে।

২. ব্যাকরণ ভাষার বিভিন্ন উপাদানের গঠন প্রকৃতি এবং সে সবের সুষ্ঠু ব্যবহার বিধি নির্নয় করে।

৩. ব্যাকরণ পাঠে ভাষার সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায় এবং লেখায় ও কথায় শুদ্ধ ভাষা প্রয়োগ করা যায়।

৪. ব্যাকরণ সাহিত্যের রস-মাধুর্য্য আস্বাদনে সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে।

৫. ব্যাকরণ পাঠে ভাষার ছন্দ-অলংকার বিষয়ে জ্ঞান লাভ করা যায়।

৬. ব্যাকরণ পাঠে ভাষার বিভিন্ন পরিবর্তনের ধারা, নিয়ম শৃঙ্খলা ও বিশ্লেষণ সম্পর্কে জানা যায়।

সংস্কৃত ব্যাকরণ অষ্টাধ্যায়ী

উপমহাদেশের শ্রেষ্ঠ ব্যাকরণবিদ পাণিনি আনুমানিক খ্রিষ্টপূর্ব পঞ্চম শতকে এই সংস্কৃত ব্যাকরণ ‘অষ্টাধ্যায়ী’ গ্রন্থখানি রচনা করেন। পাণিনির ব্যাকরণের ধারাগুলো ছিল-ঐন্দ্র, চান্দ্র, শাকটায়নী, হেমচন্দ্রীয় প্রভৃতি।

বাংলা ব্যাকরণ

যে শাস্ত্রে বাংলা ভাষার নানা উপাদানের প্রকৃতি এবং স্বরূপের বিচার ও বিশ্লেষণ করা হয় এবং যে শাস্ত্রে বিভিন্ন উপাদানের সম্পর্ক নির্ণয় ও প্রয়োগবিধি বিশদভাবে আলোচনা করা হয়, সেই শাস্ত্রকে বাংলা ব্যাকরণ বলে। আরও সহজ করে বললে যে শাস্ত্রে বাংলা ভাষার স্বরূপ ও প্রকৃতি বর্ণনা করা হয় তাকে বাংলা ব্যাকরণ বলে।

ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ’র মতে’ ‘‘যে শাস্ত্র জানিলে বাঙ্গালা ভাষা শুদ্ধরুপে লিখিতে, পড়িতে ও বলিতে পারা যায়, তাহার নাম বাঙ্গালা ব্যাকরণ।’’

ডক্টর সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়ের মতে, “যে শাস্ত্রে বাংলা ভাষার স্বরূপ ও প্রকৃতি সব দিক দিয়ে আলোচনা করে বুঝিয়ে দেওয়া হয়, তাকে বলে বাংলা ভাষার ব্যাকরণ বা বাংলা ব্যাকরণ।”

বাংলা ভাষার প্রথম ব্যাকরণ

বাংলা ব্যাকরণের প্রথম গ্রন্থ রচনা করেন মনোএল দ্যা আসসুম্পাসাঁও। এই বাংলা ব্যাকরণের নাম ‘ভোকাবুলারিও এম ইদিওমা বেনগেল্লা ই পর্তুগিজ ; দিভিদিদো এম দুয়াস পার্তেস ‘ (Vocabolario em idioma Bengalla, e Potuguez, dividedo em duas partes), যা ১৭৪৩ সালে পর্তুগালের লিসবন থেকে গ্রন্থটি প্রকাশিত হয় ।

এই ব্যকরন গ্রন্থটি দুটি অংশে বিভক্ত, যার প্রথম অংশ বাংলা ব্যাকরণের একটি সংক্ষিপ্তসার এবং দ্বিতীয় অংশ বাংলা-পর্তুগিজ ও পর্তুগিজ-বাংলা শব্দাভিধান। এটি রোমান হরফে মুদ্রিত হয়। মনোএল দ্যা আসসুম্পাসাঁও গাজীপুর জেলার নাগরী এলাকার সাধু নিকোলাস ধর্মপল্লিতে বসে এই গ্রন্থটি রচনা করেন।

A Grammar of the Bengal Language

নাথানিয়েল ব্রাসি হ্যালহেড ১৭৭৮ খ্রিষ্টাব্দে ইংরেজি ভাষায় বাংলা ব্যাকরণ A Grammar of the Bengal Language (আ গ্রামার অব দ্য বেঙ্গল ল্যাঙ্গুয়েজ) রচনা করেন। তিনিই প্রথম বৈয়াকরণ যিনি বাংলা ব্যাকরণ রচনায় উদাহরণের ক্ষেত্রে বাংলা পাঠ ও বাংলা লিপি ব্যবহার করেন। তার ব্যাকরণেই সর্বপ্রথম বাংলা অক্ষরের প্রকাশ ঘটে এবং এটি বাংলা ভাষার প্রথম আদর্শ ব্যাকরণ। ব্যাকরণ গ্রন্থটির অংশবিশেষ বাংলায় চার্লস উইলকিনসের হুগলির মুদ্রণযন্ত্র থেকে মুদ্রিত হয়।

গৌড়ীয় ব্যাকরণ (১৮৩৩ খ্রি.)

বাংলা ভাষায় রচিত প্রথম বাংলা ব্যাকরণ গ্রন্থ গৌড়ীয় ব্যাকরণ। রাজা রামমোহন রায় এটি রচনা করেন এবং এটি বাঙালি রচিত প্রথম বাংলা ব্যাকরণ।

বাংলা ভাষার বিভিন্ন ব্যাকরণ গ্রন্থ ও রচয়িতা

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর রচিত ব্যাকরণ গ্রন্থ ব্যাকরণ কৌমুদী (১৮৫৩ খ্রি.)

ড. মুহম্মদ এনামুল হক রচিত ব্যাকরণ গ্রন্থ ব্যাকরণ মঞ্জুরী

ড. সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায় রচিত ব্যাকরণ গ্রন্থ ভাষা প্রকাশ বাঙ্গালা ব্যাকরণ

ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ রচিত ব্যাকরণ গ্রন্থ বাঙ্গালা ব্যাকরণ

অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম এবং অধ্যাপক পবিত্র সরকার রচিত ব্যাকরণ গ্রন্থ প্রমিত ভাষার বাংলা ব্যাকরণ

বিসিএস পরীক্ষায় আসা প্রশ্ন সমূহ

১. কে সর্বপ্রথম বাংলা টাইপ সহযোগ বাংলা ব্যাকরণ মুদ্রণ করেন? (২৬তম বিসিএস)

ক. স্যার উইলিয়াম জোনস

খ. স্যার উইলিয়াম কেরী

গ. রাজীব লোচন মুখোপাধ্যায়

ঘ. ব্রাসি হ্যালহেড

উত্তরঃ ঘ. ব্রাসি হ্যালহেড

২. রাজা রামমোহন রচিত বাংলা ব্যাকরণের নাম কী? (২৭তম বিসিএস/গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লি. এর সহকারী ব্যবস্থাপক)

ক. মাগধায় ব্যাকরণ

খ. গৌড়ীয় ব্যাকরণ

গ. মাতৃভাষা ব্যাকরণ

ঘ. ভাষা ও ব্যাকরণ

উত্তরঃ খ. গৌড়ীয় ব্যাকরণ

. ভাষা প্রকাশ বাঙ্গালা ব্যাকরণ কে রচনা করেন? (২২তম বিসিএস/প্রাক-প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক)

ক. ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

খ. সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায়

গ. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

ঘ. সুকুমার সেন

উত্তরঃ খ. সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায়

পিএসসি’র বিভিন্ন পরীক্ষায় আসা প্রশ্ন সমূহ

১. গ্রিক ভাষায় ‘Grammar’ শব্দের অর্থ কী? (দি সিকিউরিটি প্রিন্টিং করপোরেশন এর অফিসার জেনারেল)

ক. নিয়ম শাস্ত্র

খ. ব্যাকরণ শাস্ত্র

গ. শব্দশাস্ত্র

ঘ. ধ্বনিবিজ্ঞান শাস্ত্র

উত্তরঃ গ. শব্দশাস্ত্র

২. ব্যুৎপত্তিগতভবে ব্যাকরণ শব্দের অর্থ হলো-(প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক)

ক. বিশেষভাবে বিভাজন

খ. বিশেষভাবে সংযোজন

গ. বিশেষভাবে বিশ্লেষণ

ঘ. বিশেষভাবে বিয়োজন

উত্তরঃ গ. বিশেষভাবে বিশ্লেষণ

৩. ‘‘যে শাস্ত্র জানিলে বাঙ্গালা ভাষা শুদ্ধরুপে লিখিতে, পড়িতে ও বলিতে পারা যায়, তাহার নাম বাঙ্গালা ব্যাকরণ।’’ এ সংজ্ঞাটি কার? (যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা)

ক. ড. সুকুমার সেন

খ. ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

গ. ড. এনামুল হক

ঘ. ড. সুনীতকুমার চট্রোপাধ্যায়

উত্তরঃ খ. ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

৪. ব্যাকরণের প্রধান কাজ হচ্ছে-(বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এর এরোড্রম কর্মকর্তা)

ক. ভাষার নিয়ম প্রতিষ্ঠা

খ. ভাষার শৃঙ্খলা

গ. ভাষার বিশ্লেষণ

ঘ. ভাষার উন্নতি

উত্তরঃ গ. ভাষার বিশ্লেষণ

৫. ভাষার অভ্যন্তরীণ নিয়ম শৃঙ্খলার আবিস্কার নামই-(প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক)

ক. সন্ধি

খ. সমাস

গ. উক্তি

ঘ. ব্যাকরণ

উত্তরঃ ঘ. ব্যাকরণ

৬. কোনটি সঠিক? (বাংলাদেশ ওয়েল, গ্যাস ও মিনারেল কর্পোরেশন অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার)

ক. ব্যাকরণ ভাষার অনুগামী

খ. ভাষা ব্যাকরণের অনুগামী

গ. ব্যাকরণ শিক্ষার  অনুগামী

ঘ. ব্যাকরণ শব্দযন্ত্রের অনুগামী

উত্তরঃ ক. ব্যাকরণ ভাষার অনুগামী

৭. ব্যাকরণ ভাষাকে কি নির্দেশ করে? (NBR এর রাজস্ব কর্মকর্তা)

ক. ভাষাকে চলিতে

খ. ভাষাকে শাসন করে

গ. ভাষাকে বলিতে

ঘ. ভাষাকে বর্ণনা করে

উত্তরঃ ঘ. ভাষাকে বর্ণনা করে

৮. ভাষার সংবিধান কোনটি? (বাংলাদেশ বেসরকারি বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের অফিস সহকারী)

ক. বর্ণমালা

খ. ধ্বনি

গ. ব্যাকরণ

ঘ. সমাস

উত্তরঃ গ. ব্যাকরণ

৯. উপমহাদেশের শ্রেষ্ঠ ব্যাকরণবিদ কে ছিলেন? (বাংলাদেশ কম্পট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেল কার্যালয়ের অডিটর)

ক. সুকুমার সেন

খ. ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

গ. পাণিনি

ঘ. সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায়

উত্তরঃ গ. পাণিনি

১০. পাণিনি কে ছিলেন? (কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ এর ক্যাশ সহকারী)

ক. ভাষাবিদ

খ. ঋগ্বেবিদ

গ. বৈয়াকরণিক

ঘ. ঔপন্যাসিক

উত্তরঃ গ. বৈয়াকরণিক

১১. বাংলা ভাষার প্রথম ব্যাকরণ রচনা করেন-(ডাক বিভাগের অফিস সহায়ক)

ক. ম্যানোএল দ্য আসসুস্পসাঁও

খ. ড. সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায়

গ. ড. সুকুমার সেন

ঘ. ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

উত্তরঃ ক. ম্যানোএল দ্য আসসুস্পসাঁও

১২. বাংলা ভাষার প্রথম ব্যাকরণ বাংলাদেশের কোন অঞ্চলে রচিত হয়? (সিকিউরিটি প্রিন্টিং করপোরেশন লি. এর সহকারী ব্যবস্থাপক)

ক. চট্রগ্রাম

খ. গাজীপুর

গ. নোয়াখালী

ঘ. সিলেট

উত্তরঃ খ. গাজীপুর

১৩. কোনটি প্রাচীন বাংলা ব্যাকরণ? (থানা সহকারী শিক্ষা অফিসার)

ক. আধুনিক বাংলা ব্যাকরন

খ. A Grammer of the Bengali Language

গ. সরল ভাষা প্রকাশ বাংলা ব্যাকরণ

ঘ. ব্যাকরণ মঞ্জরী

উত্তরঃ খ. A Grammer of the Bengali Language

১৪. বাংলা ব্যাকরণ প্রথম রচনা করেন-(সমন্বিত পাঁচ ব্যাংক এর অফিসার)

ক. এন. বি. হ্যালহেড

খ. উইলিয়াম কেরী

গ. ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

ঘ. ড. সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায়

উত্তরঃ ক. এন. বি. হ্যালহেড

১৫. প্রথম কোন বাঙালি বাংলা ভাষায় ব্যাকরণ রচনা করেন? (মাধ্যামিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের ‍উচ্চমান সহকারী)

ক. রাজা রামমোহন রায়

খ. সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায়

গ. ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

ঘ. ড. এনামুল হক

উত্তরঃ ক. রাজা রামমোহন রায়

১৬. বাংলা ভাষায় ব্যাকরণ কে লিখেন? (শ্রম অধিদপ্তরে শ্রম অফিসার)

ক. ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর 

খ. ডেভিড হেয়ার

গ. মদনমোহন তর্কালঙ্কার

ঘ. উইলিয়াম কেরী

উত্তরঃ ক. ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

১৭. ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর রচিত ব্যাকরণ গ্রন্থের নাম কী? (বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের জুনিয়র ইন্সট্র্যাক্টর)

ক. ব্যাকরণ কৌমুদী

খ. ব্যাকরণ মঞ্জুষা

গ. মুগ্ধবোধ

ঘ. অষ্টাধ্যায়ী

উত্তরঃ  ক. ব্যাকরণ কৌমুদী

১৮. ব্যাকরণ মঞ্জরী কার লেখা? (দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী পরিচালক)

ক. ড.  মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

খ. ড. মুহম্মদ এনামুল হক

গ. সুনীতিকুমার চট্রোপাধ্যায়

ঘ. মুহম্মদ আবদুল হাই

উত্তরঃ খ. ড. মুহম্মদ এনামুল হক

ভার্সিটির ভর্তি পরীক্ষায় আসা প্রশ্ন সমূহ

১. ব্যাকরণ শব্দের ব্যুৎপত্তি কোনটি? (বঙ্গবন্ধু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)

ক. বি+আ+কৃ+অন

খ. ব্যা+ক+রন

গ. বৃ+কৃ+অন

ঘ. ব্য+আ+কৃ+অন

উত্তরঃ ক. বি+আ+কৃ+অন

২. নিচের কোনটি ব্যাকরণের পাণিনি ধারা ? (যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)

ক. শাতটায়নী

খ. কালাপিক

গ. সৌপদ্ম

ঘ. লঘু কৌমুদী

উত্তরঃ ক. শাতটায়নী

৩. বাংলা ব্যাকরণ প্রথম যে ভাষায় লেখা হয়- (জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়)

ক. ইংরেজি

খ. ফরাসি

গ. সংস্কৃত

ঘ. পর্তুগিজ

উত্তরঃ ঘ. পর্তুগিজ

৪. Vocabolario em idioma Bengalla, e Potuguez dividido em duas partes বইটি মুদ্রিত হয় কোন হরফে? (যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়)

ক. রোম্যান

খ. ল্যাুটিন

গ. পর্তুগিজ

ঘ. তাম্র

উত্তরঃ ক. রোম্যান

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This div height required for enabling the sticky sidebar
error: Content is protected !!